Home / Lifestyle / কক্সবাজার সমুদ সৈকত মেয়েরা গোসল নামে কি করে।-দেখুন ভিডিওতে

কক্সবাজার সমুদ সৈকত মেয়েরা গোসল নামে কি করে।-দেখুন ভিডিওতে

টিকটক এর নামে কি হচ্ছে এসব?(দেখুন ভিডিতে)

কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে গোসল করার নিয়ম মানছেন না পর্যটকরা। এতে বাড়ছে দুর্ঘটনা। আর বিপুলসংখ্যক পর্যটককে সামাল দিতেও হিমশিম খাচ্ছেন নিরাপত্তাকর্মীরা। সংশ্লিষ্টদের দাবি, নিয়ম মেনে নির্দিষ্ট জোনের মধ্যে গোসল করলে সমস্যা হয় না। তবে অনেকে বাড়তি উচ্ছ্বাসের কারণে সাগরের গভীরে, নির্দিষ্ট সুইমিং জোনের বাইরে, ভাটার সময়, এমনকি সন্ধ্যার পরও সাগরের পানিতে থাকেন।

Loading...

ছুটি কাটাতে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারে এখন ভিড় । সৈকতে প্রতিটি পয়েন্টে পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড়। নগর জীবনের যান্ত্রিকতা থেকে দূরে সাগর সৈকতের জলরাশিতে উচ্ছাসে মেতেছেন এসব ভ্রমণ পিপাসুরা।

তবে সাগরে গোসলে নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম থাকলেও তা মানছেন না কেউ। বিশেষ করে পর্যটকরা নির্দেশনা উপেক্ষা করে সাগরে গোসল করতে নেমে পড়ছে। এতে ¯্রােতে ভেসে গিয়ে মারা যাচ্ছেন অনেকেই। বাড়ছে দুর্ঘটনা। লাইফগার্ড কর্মীদের দাবি, এ ব্যাপারে পর্যটকদের আকুতি মিনতি করে বলা হলেও তারাতো শুনেন না, উল্টো বকাঝকা করেন।

নির্দিষ্ট জোনে গোসল এবং জোয়ার ভাটার নির্দেশিকা না মেনে পর্যটকরা গোসল করতে নামলে দুর্ঘটনা ঘটতো না।
এদিকে গত মঙ্গলবার কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে গোসল করতে নেমে সুদীপ্ত দে নামে এক শিক্ষার্থীরা মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকালে মহেশখালীর সোনাদিয়া দ্বীপ থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

টিকটক এর নামে কি হচ্ছে এসব?(দেখুন ভিডিতে)

সে ঢাকার সূত্রাপুর এলাকার শীতল চন্দ্র দে’র ছেলে। শুক্রবার বিকালে লাবণী পয়েন্টে গিয়ে দেখা গেছে, হাজার হাজার পর্যটক ও স্থানীদের পদভারে মুখর পুরো সৈকত। তার মাঝে শত শত পর্যটক সাগরে গোসল করছেন। এরমধ্যে পুরুষ পর্যটকের পাশাপাশি নারী–শিশুও রয়েছে। সৈকতে নিয়জিত লাইফগার্ড কর্মীরা গোসল করা পর্যটকদের পানি থেকে উঠে যাওয়ার নির্দেশনা দিচ্ছেন।

Loading...

বেশি দূরে গিয়ে গোসল না করার পরার্মশও দিচ্ছেন। রবি লাইফগার্ড কর্মী সালাউদ্দিন বলেন, বিকাল সাড়ে ৩ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত ভাটার সময়। এসময়ে সাগরে গোসল করা অনিরাপদ। যেকোনো সময় ¯্রােতের টানে ভেসে যেতে পারে। পর্যটকদের সতর্ক করার জন্য সাগরের পানিতে লাল পতাকাও টাঙানো হয়েছে।

লাল পতাকা টাঙানো মানে ওই সময় সাগলে গোসল করা নিরাপদ নয়। কিন্তু পর্যটকরা এসব নির্দেশনা মানছেন না। সাগরের একদিকে তুলে দিলে অন্যদিকে গোসল করতে আবার নামেন। হাজার হাজার মানুষের মাঝে সতর্ক করাও মুশকিল। তারপর চেষ্টা চালানো হচ্ছে ভাটার সময় যাতে সাগলে গোসল করতে না নামে।

টিকটক এর নামে কি হচ্ছে এসব?(দেখুন ভিডিতে)


রবি লাইফগার্ডের ইনচার্জ ছৈয়দ নুর বলেন, লাবণী পয়েন্টে প্রায় এক কিলোমিটারের নির্দিষ্ট অংশ চিহ্নিত করে দেয়া হয়েছে; যেখানে পর্যটকরা নিরাপদে গোসল করতে পারবে। এই এক কিলোমিটারের দুই মাথায় পতাকাও টাঙানো হয়েছে। যাতে এরমধ্যেই গোসল করতে পারে। কিন্তু নির্দিষ্ট অংশের বাইরে গিয়ে পর্যটকরা গোসল করছে। তাদের কোনোভাবে দমিয়ে রাখা যায় না। এমনকি গোসল করতে না নামার সতর্ক সংকেত থাকার পরও পর্যটকরা সাগরে নামছে।

লাইফ গার্ড কর্মী সুমন বলেন, ভর সন্ধ্যায় সাগরে গোসল করাটা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ, এ বিষয়ে তাদের সতর্ক করা হয়েছে। কিন্তু অনেক পর্যটক সন্ধ্যার পরও সাগরে গোসল করতে নামেন। আমি বেশ কয়েকবার উনাদের বারণ করেছি, কিন্তু উনারা কথা শুনছেন না। সন্ধ্যার সময় ভাটার টানও শুরু হয় বেশি। পর্যটকদের বললেও উনারা সাগর থেকে উঠে না।

এদিকে কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে গোসল করতে নেমে অধ্যবধি কয়জন পর্যটক ও স্থানীয়দের মৃত্যু হয়েছে তার কোনো সঠিক পরিসংখ্যান নেই সরকারি বেসরকারি সংশ্লিষ্ট কোনো দপ্তরে।

Loading...

তবে সৈকতে পর্যটক নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত রবি লাইফ গার্ডের ইনচার্জ ছৈয়দ নুর বলেন, গত পাঁচ বছরে কক্সবাজার সৈকত ও টেকনাফের সেন্টমার্টিনে ১৪ জনের মতো মৃত্যু হয়েছে। তৎমধ্যে গত তিনবছরে কক্সবাজারের ডায়াবেটিস পয়েন্টে, লাবণী পয়েন্ট, সী–ইন পয়েন্ট ও কলাতলী পয়েন্টে মৃত্যু হয়েছে আটজনের।

২০১৬ সালের ৩০ জুন কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের কলাতলী পয়েন্টে গোসল করতে নেমে মৃত্যু হয় আসমা বেগম নামের এক নারী পর্যটকের। এসময় মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছিল আরো ৪ পর্যটককে। নিহত আসমা ঢাকা রামপুরার বাসিন্দা শওকত কবিরের স্ত্রী।

টিকটক এর নামে কি হচ্ছে এসব?(দেখুন ভিডিতে)

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *